এখানেই বিনোদন

নিশ্চুপ পপি, মুখ খুললেন কথিত স্বামী আদনান


কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে গোপনে বিয়ে করে পুত্রসন্তানের মা হয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা সাদিকা পারভীন পপি। সোশ্যাল মিডিয়া বা মুঠোফোনে পাওয়া যাচ্ছে না তাকে। পাশাপাশি বিয়ে করার কারণে মায়ের সঙ্গেও যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করেছেন তিনি—এমন কথাও শোনা যাচ্ছে।

হঠাৎ করে নায়িকার আড়ালে যাওয়ার রহস্য খুঁজতে বেরিয়ে আসে তার গোপন সংসার ও সন্তান জন্মের খবর। ২০২১ সালের অক্টোবরে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে পুত্রসন্তানের জন্ম দেন পপি। তার বিয়ের খবর ও সন্তান জন্মের খবর গণমাধ্যমে প্রকাশ্যে আসে। তবে তার স্বামী ও সন্তান নিয়ে নানা প্রশ্ন চারদিকে ঘুরে বেড়াচ্ছিল।

পপির পারিবারিক সূত্রটি জানান, নায়িকা তার সন্তানের নাম রেখেছেন আয়াত। প্রথম সন্তানের বয়স দুই বছর। আর পপির স্বামীর নাম আদনান উদ্দিন কামাল। তিনি জান্নাত গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর। রয়েছে জাহাজের ব্যবসা। তিনি লালবাগ কাজী রিয়াজ উদ্দিন রোডের বাসিন্দা।

এদিকে গণমাধ্যমে সংবাদটি প্রকাশের নিশ্চুপ ভূমিকায় নায়িকা পপি থাকলেও মুখ খুলেছেন তার কথিত স্বামী আদনান। পপিকে বিয়ের কথা অস্বীকার করেছেন আদনান উদ্দিন কামাল। তিনি জানান, তার বিরুদ্ধে কেউ ষড়যন্ত্র করছেন।

আমার কাছে কয়েক হাজার ফোন এসেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ নিয়ে আমি খুবই বিরক্ত। এমনভাবে আমাকে প্রশ্ন করা হচ্ছে, আমি যেন রিমান্ডে রয়েছি। আবার এমনটাও লেখা হয়েছে যে, আমার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে আমার। আসলে এসব করে আমাকে রীতিমতো ভাইরাল করে দিয়েছে। অবশ্য বিষয়টি আমার স্ত্রী বেশ উপভোগ করছে।

আদনান কামাল আরও বলেন, আমি পুরান ঢাকার ছেলে। মানুষের মানসম্মান অনেক বড় বিষয়। কাউকে ছোট করে কখনও কেউ বড় হতে পারে না। যেই সাংবাদিক এভাবে লিখেছেন, তাকে কিছু বলব না। তাকে অনেক কষ্ট করে পড়ালেখা করিয়ে সাংবাদিক বানিয়েছেন তার মা-বাবা। তিনি (সাংবাদিক) সম্মানজনক একটি পেশায় রয়েছেন।

তিনি যোগ করেন, তবে ওই সাংবাদিক না বুঝে এভাবে লিখতে পারেন না। আবার নিশ্চিত না হয়ে ছবি দেওয়া উচিত নয়। এই পুরো ব্যাপারে খুবই সারপ্রাইজড আমি। কিন্তু এ ধরনের নিউজ নিয়ে পড়ে থাকলে চলবে না আমার। সবাইকে বলব, আপনারা জেনে তবেই লিখুন। আর যদি না জেনেও লিখতে চান, তাহলেও লিখুন। তবে খারাপ লাগছে এ জন্য যে, আপনারা আমার তিন সন্তান নিয়ে লিখছেন যা খুবই কষ্টকর।

পপির সঙ্গে তার পারিবারিক সম্পর্ক আছে বলে জানালেন তিনি। কিন্তু বিয়ে করেননি। আদনান কামাল বলেন, পপি আমাদের পারিবারিক বন্ধু। আমার স্ত্রীর বড় বোনের ফ্রেন্ড। ২০১৮ সালে পপি ম্যাডাম আমার ছোটবোনের বিয়েতেও এসেছিলেন। গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান এবং আমাদের শো-ও করেছেন। বলিউড তারকা শাহরুখ খানও তো নাচেন, তাই বলে কি ওই মেয়ের সঙ্গে শাহরুখ খানের বিয়ে হয়? আমরা ঢাকাইয়া মানুষ। খাওয়া-দাওয়ার মানুষ, কেউ এলে তাকে না খাইয়ে ছেড়ে দেই না।

তিনি বলেন, এখন সবাই যদি আমাদের পারিবারিক সম্পর্ক নিয়ে কিছু বলে, কী বলব? আমি আমার স্ত্রীর কাছে জানতে চেয়েছি, তাদের সঙ্গে পপির পরিচয় কবে থাকে? সে জানিয়েছে ২০০৪ থেকে তাদের পরিচয়। ওই সময় তো আমার বিয়েও হয়নি। আমি বিয়ে করেছি ২০১১ সালে। আর পপি কি কোথাও বলেছেন যে, আমি তার হাজবেন্ড। তার সঙ্গে পারিবারিক বন্ধুত্বের কারণে সাক্ষাৎ হয়ে থাকে। সে আমাদের বাড়িতে এসেছে, আমরাও তার বাড়িতে গেছি। কিন্তু এভাবে বিষয়টি বিয়ে পর্যন্ত নেওয়ার মানেই হয় না।

সর্বশেষ আয়াত নামের সন্তান থাকার ব্যাপারে আদনান কামাল বলেন, এটা মিথ্যা কথা। আমার তিন সন্তান। বড় মেয়ে আদিবা, ছোট মেয়ে আজরীন ও ছেলে আলভী। আমাকে মনে হয় সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করতে প্রতিপক্ষ ব্যবসায়ীরা এসব কাজ করছেন। তিন-চারজনকে সন্দেহ করছি। নিশ্চিত হয়ে তবেই তাদের নাম বলতে চাই আমি।

প্রসঙ্গত, পপির আড়াল থাকার কারণে আটকে আছে কয়েকটি সিনেমা। তার মধ্যে রয়েছে, রাজু আলীম ও মাসুমা তানি পরিচালিত ‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ ও আরিফুর জামান আরিফের ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’ সিনেমা দুটি। মুক্তির অপেক্ষায় আছে সাদেক সিদ্দিকী পরিচালিত ‘ডাইরেক্ট অ্যাটাক’ সিনেমাটি।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

85,000FansLike
285,000SubscribersSubscribe

Latest Articles

Translate »