এখানেই বিনোদন

মেসিকে অনুকরণ করলেন সুমি


আজ থেকে প্রায় ১০ মাস আগে বিশ্বকাপ ফুটবল জিতেছে আর্জেন্টিনা। কাপ জেতার পরদিন কিংবদন্তি ফুটবলার লিওনেল মেসি কাপসহ বেশ কয়েকটি ছবি প্রকাশ করেছিলেন। কাপ নিয়ে নিজের বিছানায় শুয়ে থাকার ছবি সে সময় ভাইরাল হয়েছিল নেট দুনিয়ায়। আর্জেন্টিনা কাপ নেওয়ার ১০ মাস পর সেই স্মৃতি যেন উসকে দিলেন চিরকুট ব্যান্ডের প্রধান সুমি।

গতকাল ১৮ অক্টোবর বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড-এ শ্রেষ্ঠ ব্যান্ড হিসেবে পুরস্কৃত হয় জনপ্রিয় ব্যান্ড চিরকুট। ‘মাটিগীত’ শিরোনামের অডিও-ভিডিও অ্যালবামের ‘খালাস’ গানটির জন্য পুরস্কৃত হন তারা। গতকাল বুধবার (১৮ অক্টোবর) রাজধানীর একটি পাঁচতারা হোটেলে এ পুরস্কার গ্রহণ করেন চিরকুট ব্যান্ডের সদস্যরা। তাঁদের হাতে পুরস্কারটি তুলে দেন ব্যান্ড তারকা মানাম আহমেদ।

বলে রাখা ভালো, গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর বিশ্বকাপ জেতে মেসির দল। ১৯ তারিখে প্রকাশ পায় মেসির সেই কাপসহ নানা ভঙ্গির ছবি। সুমিও মেসির মতো একই ভঙ্গিতে ছবি তুলে কোলাজ প্রকাশ করেছেন ফেসবুকে।

ছবির সঙ্গে মেসিভক্ত এই সংগীত তারকা ক্যাপশন জুড়ে দেন এভাবে- ‘শিরায় শিরায় রক্ত, আমরা মেসি ভাইয়ের ভক্ত! মেসি ভাই প্রথমবার বিশ্বকাপ জেতার পর রাতে তাঁর ঘুম ভালো হইসিল।

তিনি জুস খেয়েছিলেন, রিলাক্স করেছিলেন। তাই গত রাতে তৃতীয়বারের মতো চ্যানেল আই-সানসিল্ক মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসে চিরকুট ‘বেস্ট ব্যান্ড’ অ্যাওয়ার্ড জেতার খুশিতে ভাইয়ের মতোই আমাদেরও রাতে বেশ ভালো ঘুম হয়েছে এবং আমরাও জুস খেয়েছি ও চিল করেছি।’ ছবিগুলো এরই মধ্যে মেসি ও সুমিভক্তরা লুফে নিয়েছেন।
উল্লেখ্য, চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডে এ বছর আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী একুশে পদকপ্রাপ্ত ও জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত বিশিষ্ট সংগীতজ্ঞ সুজেয় শ্যাম। ‘আজীবন সম্মাননা’সহ মোট ২২টি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

‘সুস্থ সংগীতের উৎকর্ষ সাধন’- এই লক্ষ্য সামনে রেখে ২০০৪ সালে শুরু হয়েছিল ‘চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস’। এ বছর এই অ্যাওয়ার্ডের ১৮তম আয়োজন অনুষ্ঠিত হলো। অনুষ্ঠানে কোরিওগ্রাফি ড্যান্স পারফরম্যান্সের সঙ্গে নিজেদের জনপ্রিয় গানগুলো পরিবেশন করে ব্যান্ড চিরকুট।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

70,000FansLike
280,000SubscribersSubscribe

Latest Articles

Translate »